আপনার মন্তব্য জানাতে ক্লিক করুন
যাক। মনে হচ্ছিল এই সংখ্যার লেখাটা বোধহয় কারোর তেমন ভালো লাগেনি। আসলে লাদাখের বর্ণনা দিতে বসলে হয়তো অনেকটা একইরকম লাগে। কিন্তু চোখে দেখার যে মুগ্ধতা থাকে তা তুলনাহীন।
- দময়ন্তীদি [2017-04-12]
পড়েছি অনেক দিন আগেই। ডাউনলোড করে অফলাইনে পড়ি। আবার অনলাইন হয়ে মতামত জানাতে দেরী হয়ে গেল। তবে পড়ে ভালো লাগার অনুভুতি একটুও ম্লান হয় নি। প্রথম পর্বে প্লেন-পর্ব ইত্যাদি নিয়ে একটা ধুন্ধুমার ছিল, এই পর্ব সেই তুলনায় অনেক বেশি ঢিমে লয়, তবু আমার এই পর্বটা বেশি ভালো লাগল, কেন জানি না। বেশ তরিজুত করে রান্না করা তরকারি যেমন গরম গরম খাওয়ার থেকে একটু মজে এলে বেশি স্বাদু লাগে, অনেকটা সেই রকম। সত্যি কথা বলতে নাম ধরে ধরে তথ্যাদি পড়ে চলেছি ঠিকই তবে, মনে থাকছে না। চেষ্টাও করছি না আসলে। আপনার সাথে সাথে ঘোরার মজাটা নিচ্ছি পুরো মাত্রায়। এই যেমন খারদুংলায় ঐ অবস্থার কথা জেনে গাড়ি ঠেলতে নামছিলাম। পরের লাইনে দেখলাম আপনি নামেন নি। আর নামলাম না। এই যে ঘোরা, ছুঁয়ে আসা, এমনকি ছেড়ে আসা সবটুকুই এনজয় করছি। চলতে থাকুক।
- Kanchan Sengupta [2017-04-01]